Home বইয়ের খবর

বইয়ের খবর

দারুন একটি বই ৩(নেট থেকে)

nekrearchhagalchhanara_cover

পুরো বইটি পড়ুন

দারুন একটি বই ২(নেট থেকে)

1268378

পুরো বইটি পড়ুন

দারুন একটি বই ১(নেট থেকে)

1268378

পুরো বইটি পড়ুন

ভয় 2 (নেট থেকে)

scream-horror.jpg.560x0_q71_crop-smart

পুরো বইটি পড়ুন

ভয় (নেট থেকে)

scream-horror.jpg.560x0_q71_crop-smart

পুরো বইটি পড়ুন

হারেম (নেট থেকে)



পুরো বইটি পড়ুন

ভৌতিক গল্প (নেট থেকে)



পুরো বইটি পড়ুন

বাহাদুর শাহের বিচার (নেট থেকে)



পুরো বইটি পড়ুন

রহস্য ৩ (নেট থেকে)



পুরো বইটি পড়ুন

ভৌতিক রচনা (নেট থেকে)



পুরো বইটি পড়ুন

রোমাঞ্চ ২ (নেট থেকে)



পুরো বইটি পড়ুন

রোমাঞ্চ ১ (নেট থেকে)



পুরো বইটি পড়ুন

রহস্য ২ (নেট থেকে)



পুরো বইটি পড়ুন

রহস্য ১ (নেট থেকে)



পুরো বইটি পড়ুন

কমিকস (নেট থেকে)



পুরো বইটি পড়ুন

গোয়েন্দা আর গোয়েন্দা (নেট থেকে)



পুরো বইটি পড়ুন

টু ন টু নি (নেট থেকে)



পুরো বইটি পড়ুন

কা বু লি ও লা (নেট থেকে)



পুরো বইটি পড়ুন

গোয়েন্দা কমিকস



পুরো বইটি পড়ুন

মহাভারত নতুন আলোয়



পুরো বইটি পড়ুন

খুব মজাদার কাহিনী সমগ্র



পুরো বইটি পড়ুন

ফাটাফাটি এক ডজন রহস্য (নেট থেকে)



পুরো বইটি পড়ুন

দুর্দান্ত বইটি হাতে নিয়ে দেখুন (নেট থেকে)



পুরো বইটি পড়ুন

দুর্দান্ত বইটি হাতে নিয়ে দেখুন (নেট থেকে)



পুরো বইটি পড়ুন

দারুন একখানা রচনা পেলুম (নেট থেকে)



পুরো বইটি পড়ুন

আজকে পুরনো মজার পাতা (নেট থেকে) দিলুম

আজকে পুরনো একটি বই (নেট থেকে নেয়া) দিলুম

মঙ্গল পাণ্ডে


পুরো বইটি পড়ুন

আজকে পুরনো ক’খানি পাতা (নেট থেকে) দিলুম


আজকে পুরনো একখানি গল্প (নেট থেকে) দিলুম


ঘনাদা

ঘনাদা – বাংলা সাহিত্যের একটি কাল্পনিক চরিত্র যা  প্রেমেন্দ্র মিত্র  মূলত শিশু এবং কিশোরদের জন্য  তৈরি করেছেন  , যদিও সমস্ত বয়সের পাঠকরা তাকে উপভোগ করেন। আপনিও যদি সাইবেরিয়ান হাঁসের পেট থেকে বেরনো কৌটো রহস্য বা  কোন  দ্বীপের নুড়ি তুলে আগ্নেয়গিরির নাচন দেখতে চান, তাহলে চট করে পড়ে ফেলুন ব্যস্ত রোজের মাঝে সময় বের করে। হলফ করে বলতে পারি সাহিত্যরসের কমতি বা “অজানারে জানার” খামতি – কোনটাই থাকবে না।

বাঙালীর প্রাতরাশ, মধ্যাহ্ন ভোজন, বিকেলের চা – টা, পান – সিগারেট সহ আড্ডা, ব্রেজড কাটলেট – মাটন চপ আর অলস সন্ধ্যার কলকাতা পরতে পরতে ধরা আছে ছাপানো লেখায়। বাড়তি পাওনা – বিশ্বের ভাষা – পরিচয়, মানুষ ও তাদের বিচিত্র নাম ও স্বভাব, আদিম গুহা থেকে শুরু করে মহাকাশ অ্যাডভেঞ্চারের কাহিনী। চতুর জার্মান, হিংস্র চিনা, ভয়াল নিগ্রো – নানা জটিল কুটিল চরিত্রায়নের মাঝে কঠিন স্বভাবের রসিক বাঙালীর অসাধারন জীবনের স্বাদু রহস্য রোমাঞ্চ অ্যাডভেঞ্চারের কাহিনী।

কৃতজ্ঞতা – ঘনাদা সমগ্র (প্রেমেন্দ্র মিত্র, আনন্দ) ;   (‘তিমিতারণ ঘনাদা’ গ্রন্থবদ্ধ নাম ।। ‘ঘনাদার হিজ বিজ বিজ’  ‘শারদীয় যুগান্তর’, শিল্পী : সুব্রত ত্রিপাঠী) ; (আনন্দমেলা পুজা সংখ্যা)

ড্রাকুলা

ইংল্যান্ডের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেছিল মালবাহী রাশিয়ান জাহাজ ডেমিটার। দিন কয়েক যেতে না যেতেই নাবিকদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ল আতঙ্ক। সবাই বুঝতে পারছে এই জাহাজে ভয়ানক কোন কিছুর অস্তিত্ব আছে। কিন্তু সেটা যে কী তা কেউ জানে না, জাহাজ থেকে একে একে নিখোঁজ হতে শুরু করল নাবিকরা। মৃত্যুর আগে জাহাজের ক্যাপ্টেন বুঝতে পারলেন তারা জাহাজে করে বয়ে নিয়ে চলেছেন ভয়াল এক পিশাচকে। এভাবেই লন্ডন শহরে এসে হাজির হলো কিংবদন্তীর রক্তলোভী পিশাচ কাউন্ট ড্রাকুলা। শহর জুড়ে ঘটতে শুরু করল গা শিউরানো সব ঘটনা।

ব্রাম স্টকার রচিত এই উপন্যাসের ভিতর খুঁজে পাওয়া যাবে স্লাভ জাতির কুসংস্কার, ও পুরাকাহিনী। স্লাভেরা এখনও বিশ্বাস করে জে দুর্বৃত্ত আত্মা পৃথিবীতে ফিরে আসে ভ্যাম্পায়ারের রুপে বা রক্ত চোষা বাদুড়ের চেহারায়। অসাধারণ এই ভয়াল উপন্যাসের পাতায় ধরা রয়েছে প্রাচীন ইউরোপ ও রোমানিয়ার আদি এবং আদিম প্রকৃতি। চাঁদনী রাতের বারান্দায় টেবিল ল্যাম্পের আলোয় এই উপন্যাস অবশ্যপাঠ্য।

কৃতজ্ঞতা – ড্রাকুলা (ব্রাম স্টকার, মূল রচনা ও বিভিন্ন গ্রাফিক নভেল)

রুআহা

প্রকাশিত হল আনন্দমেলার পাতায়। ধারাবাহিক ভাবে সেই ১৯৮২ সালের আষাঢ় মাসের পত্রিকায়। কিশোর  উপন্যাসে পদে পদে বিপদের হাতছানি। কলকাতা থেকে সুদুর আফ্রিকাতে দাঁতে দাঁত চেপে আফ্রো “ওয়ানাবেরি” আর ভুশুন্ডার সাথে বদলা নেয়ার টানটান এক উপন্যাস।

তিতির আর রুদ্রর কথপকথনে ধরা পড়বে আশির দশকের কৈশোর মায়া আর ফিনফিনে রোমান্স।

লেখকের মতনই ঋজুদাও আরবান মানসিকতার মানুষ।  কখনও একটু আমুদে, আবার প্রয়োজনীয় পরিস্থিতিতে কঠিন। নিষ্ঠুর চোরা শিকারি বনাম জঙ্গলের প্রতিনিধি মানুষ – বাঙালী, ঋজুদার “ট্র্যাকার শিকারি” চরিত্রের সাথে এই উপন্যাসে অনায়াস ভ্রমণ করবে। 

কৃতজ্ঞতা – ঋজুদা সমগ্র ,  (বুদ্ধদেব গুহ, আনন্দ), (আনন্দমেলা)