“দেবী পক্ষ তো শুরু হয়নি। এখনও পিতৃপক্ষ চলছে। পুজো তো মাতৃপক্ষের। তার আগে পুজো উদ্বোধন এটা কী করে হয়?” মহালয়ার দু’দিন আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) শ্রীভূমি স্পোর্টিং ক্লাব ও সল্টলেক FD ব্লকের পুজো উদ্বোধনকে কটাক্ষ বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসুর (Biman Basu)। বৃহস্পতিবার পিতৃপক্ষেই শ্রীভূমি স্পোর্টিং ক্লাব (Sreebhumi Sporting Club), এফ ডি ব্লক (FD Block) এবং তারপর টালা পার্ক প্রত্যয়ের (Tala Park Prattoy) পুজো উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী। উদ্বোধনের পর তাঁর বক্তব্য, “এদিন থেকেই পুজো শুরু হয়ে গেল।” পালটা বিমানের প্রতিক্রিয়া, “তাহলে যাহা বলিবে, তাহাই মানিতে হইবে একখনও হয়।”

Mamata Banerjee: শহরের গতি বাড়াতে উত্তরে আরও উড়ালপুল, টালা ব্রিজ উদ্বোধনে এসে ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী
অন্যদিকে, বৃহস্পতিবার ডিএ মামলায় (DA Case) হাইকোর্টের রায় মুখ পোড়ে রাজ্য সরকারের। ডিএ নিয়ে রাজ্য সরকারের আবেদন খারিজ করে কলকাতা হাইকোর্ট (Calcutta High Court)। বৃহস্পতিবার ডিএ মামলার (DA Case) শুনানিতে গত ২০ মে-র নির্দেশই বহাল রাখল বিচারপতি হরিশ টন্ডন এবং রবীন্দ্রনাথ সামন্তের ডিভিশন বেঞ্চ। ডিএ রায় নিয়ে এদিন বিমান বসু বলেন, “মাননীয় বিচারপতিরা এটা বলেছেন এটা দেওয়া উচিত। ডিএ টা তাঁদের ( সরকারি কর্মচারী) অধিকার। এটা থেকে তাঁদের বঞ্চিত করা যায় না। তথাপি শুনতে পাচ্ছি রাজ্য সরকার সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার পরিকল্পনা করছে। সরকারের দৃষ্টিভঙ্গি খুব পরিষ্কার হয়ে যাচ্ছে। এরা মানুষের পক্ষে কথা বলে কিন্তু মানুষের বিরুদ্ধে চলবার জন্য পথ তৈরি করে।”

Smriti Irani: ১০০ দিনের কাজে মিলছে না মজুরি, রাজ্য সরকারেই দুষলেন স্মৃতি ইরানি
ডিএ নিয়ে এদিন হাইকোর্টের রায়ের বিষয়ে রাজ্য সরকারকে একযোগে সমালোচনা করে বিরোধীরা। বামফ্রন্টের বরিষ্ঠ নেতা বলেন, “এই সরকার নাকি বলছে যে জনতার পক্ষে। বাংলার মানুষের পক্ষে। মানুষের পক্ষে যদি হয় তাহলে দিল্লিতে সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার কি প্রয়োজনীয়তা আছে ? মানুষের স্বার্থে ডিএ টা দাও।” পুজোতে ৬০ হাজার টাকা অনুদান দেওয়ার বিষয়টি নিয়েও সমালোচনা করেন বিমান বসু।

Dengue Fever: ডেঙ্গির বাড়বাড়ন্তের মাঝেই নয়া আতঙ্ক, হুগলিতে অজানা জ্বরে মৃত্যু নার্সের
গতকালই ধর্মতলায় ছাত্র নেতা আনিস খানের মৃত্যু ও রাজ্য সরকারের একাধিক দুর্নীতির প্রতিবাদে সভার আয়োজন করে CPIM-র ছাত্র ও যুব সংগঠন। সমাবেশের পর তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ (Kunal Ghosh) দাবি করেন, ২০১১ সালের পর এত বড় সমাবেশ করতে পারল বাম নেতৃত্ব। বামেদের সভা নিয়ে তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়কেও (Sougata Ray) বলতে শোনা যায়, “BJP-র থেকে বামেদের বড় সভা হলে আমি খুশি হই।” বামেদের সভা নিয়ে তৃণমূল নেতাদের ‘প্রশংসা’ সূচক বক্তব্য সে সম্পর্কে এদিন বিমান বলেন, “কুণালবাবু, সৌগত বাবু কেন বলেছেন সেটা ওঁরাই বলতে পারবেন। কী কারণ আছে সেটা জানি না।” বৃহস্পতিবার প্রয়াত CPIM প্রাক্তন সাংসদ রূপচাঁদ পালের স্মরণসভায় চুঁচুড়া রবীন্দ্রভবনে উপস্থিত ছিলেন বিমান বসু।



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published.