Home Uncategorized ‘সোনার হরিণ’ ধারাবাহিকের শ্যুটিংয়ে ভাস্বরের মজার অভিজ্ঞতা, জেনে হেসে খুন নেটিজেনরা

‘সোনার হরিণ’ ধারাবাহিকের শ্যুটিংয়ে ভাস্বরের মজার অভিজ্ঞতা, জেনে হেসে খুন নেটিজেনরা

‘সোনার হরিণ’ ধারাবাহিকের শ্যুটিংয়ে ভাস্বরের মজার অভিজ্ঞতা, জেনে হেসে খুন নেটিজেনরা

কলকাতা: বেশ কিছু বছর আগে ছোট পর্দার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ছিল ‘সোনার হরিণ’। ধারাবাহিকে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে ভাস্বর চট্টোপাধ্যায় (Bhaswar Chatterjee), সমতা দাসকে (Samata Das)। সম্প্রতি নিজের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডলে সেই ধারাবাহিকের শ্যুটিং চলাকালীন নানা মজার অভিজ্ঞতার স্মৃতিচারণা করলেন ভাস্বর। যা পড়ে হাসি চেপে রাখতে পারলেন না নেট নাগরিকরা।

‘সোনার হরিণ’-এর শ্যুটিংয়ের স্মৃতিচারণা ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়ের-

এদিন নিজের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডলে সমতা দাস ও সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়ের (Sabitri Chatterjee) সঙ্গে পুরনো একটি ছবি পোস্ট করেছেন ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়। ছবি পোস্ট করে তিনি লেখেন, ‘দুদিন আগে আমার আর সমতার একটা ছবি পোস্ট করেছিলাম। প্রায় সবাই তাতে ‘সোনার হরিণ’-এর কথা বলেছেন। একটা নয় একাদিক মজার ঘটনা মনে পড়ে যাচ্ছে এই সিরিয়ালকে কেন্দ্র করে। লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ের লেখনীর জোরে ‘সোনার হরিণ’ তখন অসম্ভব জনপ্রিয়। ঠিক সেই সময় (২০০৫) সিরিয়ালে আমার আর সমতার বিয়ে হয়। টালিগঞ্জের এক স্টুডিওতে এলাহি বিয়ের সেট পড়েছে। এমনকি ফুড স্টল যেমন ফুচকা, আইসক্রিমও রাখা হয়েছে। পুরোহিত মশাইও আসল। বিয়ের সিনে অনেক শিল্পীর মধ্যে ছিলেন গীতা দে ও সাবিত্রী আন্টি। বিয়ের সিন শ্যুট শুরু করলেন শৈবাল বন্দ্যোপাধ্যায়। পুরোহিত এত সিরিয়াস যে তিনি বিয়ের আসল মন্ত্র পড়তে শুরু করলেন। শটের মাঝে মাঝে ব্রেক হচ্ছে। আমি আর সমতা সেই সময় রোল খাচ্ছিলাম। তা দেখে পুরোহিত রেগে আগুন। বলেছিলেন, ছি ছি। বিয়ের সময় উপোস না করে এগ রোল খাচ্ছেন। আর এদিকে বিয়ে দেব বলে আমি উপোস করে বসে আছি। কিছুতেই ওনাকে বোঝাতে পারলাম না এটা নকল বিয়ে।’

আরও পড়ুন – Top Entertainment News Today: টলিউড থেকে বলিউড, একনজরে দিনের সেরা বিনোদনের খবর

ভাস্বর চট্টোপাধ্যায় আরও লেখেন, ‘এরপর গল্পে দেখান হচ্ছে আমরা বিয়ের পর হনিমুন করতে গিয়ে সমুদ্রে ডুবে আমি মারা যাই। টেলিকাস্ট হওয়ার পর সে আর এক বিপত্তি। একদিন এটিএম থেকে টাকা তুলে বেরচ্ছি। গার্ড আমায় দেখে ভিরমি খেয়ে বলল – আপনি মারা যাননি? আমার সামনে মেয়েকে ফোন করে বললেন, ওরে শম্পার বর মারা যায়নি। এটিএমে এসেছে।’ অভিনেতার এমন স্মৃতিচারণায় হেসে খুন নেট নাগরিকরা।



[ad_2]

Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here