অরূপ লাহা: বাজারে আদা এখন সাধারণ মানুষের ধরাছোঁয়ার বাইরে। কিন্তু সেই আদা মিলছে উপহার হিসেবে। বর্ধমান পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের পৌরপিতার কর্মকাণ্ডে অবাক ওয়ার্ডের মানুষজন। পৌরসভার নিয়ম অনুযায়ী কাজ করলেই উপহার হিসেবে পাওয়া যাচ্ছে প্য়াকেটভরা আদা।  তবে এর জন্য একটা কাজ করতে হচ্ছে।

আরও পড়ুন-পঞ্চায়েতের আগে রাজ্যে মোদী-শাহ-নাড্ডা, বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচার বিজেপি কর্মীদের

কী সেই কাজ? পৌরসভার শর্ত হল রোজ সকালে ময়লা ফেলার গাড়িতে সঠিকভাবে ভাগ করে ফেলতে হবে ময়লা। অর্থাত্ পচনশীল ও পচনশীল নয় এমন আবর্জনা পৃথক করে ফেলতে ফেলতে হবে পৌরসভার ময়লা ফেলার গাড়িতে। বুধবার সেই শর্ত নিয়ে ১ নম্বর ওয়ার্ডের ঘরের ঘরে হাজির পৌরপিতা সুমিত কুমার শর্মা। তাঁর কথা শুনে কিছুটা অবাকই হলেন মানুষজন। অনেক খুশিই হলেন। ঘরে ঘরে গিয়ে মানুষজনকে বোঝানো হল সেকথা। ওই কাজের জন্য নিয়োগ করা হয়েছে একটি এনজিওকেও।

উল্লেখ্য, পলিথিন নিয়ে ব্যতিব্যস্ত অধিকাংশ পুরসভায়। ড্রেনেজ সিস্টেম নষ্ট করে দেওয়ার জন্য এই পলিথিনের জুড়ি নেই। আবার আবর্জনার মধ্য পলিথিন থাকায় তার নষ্ট করার ক্ষেত্রে বড় বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে পলিথিন ও পচনশীল নয় এমন বর্জ্য। তাই অধিকাংশ পৌরসভা এখন পচনশীল ও পচনশীল নয় এমন আবর্জনা আলাদা করতে হবে।

বর্ধমান পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডে চলছে ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্টের পাইলট প্রকল্প। তারই অংশ হিসেবে বুধবার ওই উদ্যাগ নেওয়া হয়। বাড়ির আবর্জনা যত্রতত্র না থেকে পুরসভার গাড়িতে ফেলার ব্যাপারে উত্সাহ দেওয়া হয় বাড়ি বাড়ি গিয়ে। পৌরপিতা সুমিত কুমার শর্মা বলেন, মোট ৪০টি বাড়িতে ৩০০ গ্রাম করে আদা উপহার হিসেবে দেওয়া হয়। উদ্দেশ্য মানুষের মধ্য়ে সচেতনতা তৈরি করা। অন্যদিকে, সাকাল সকাল ৩০০ গ্রাম আদা পেয়ে খুশি হরপ্রীত সিং, সৌমিক দে-রা। তাঁরা বলেন, আদান এই অগ্নিমূল্যের মধ্যে আদা উপহার পেয়ে খুবই ভালো লাগছে।

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App) 





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *